1. news.dailynobobarta@gmail.com : ডেইলি নববার্তা : ডেইলি নববার্তা
  2. subrata6630@gmail.com : Subrata Deb Nath : Subrata Deb Nath
শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০৫:৩১ অপরাহ্ন
শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০৫:৩১ অপরাহ্ন

লক্ষ্মীপুরে বিদ্যালয় কমিটির নির্বাচন নিয়ে শিক্ষাবোর্ডের তদন্ত

কিশোর কুমার দত্ত, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১২ এপ্রিল, ২০২২
  • ৯০ বার পঠিত
লক্ষ্মীপুরে বিদ্যালয় কমিটির নির্বাচন নিয়ে শিক্ষাবোর্ডের তদন্ত

Tags: ,

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার হাজিরপাড়া ইউনিয়নের মিরপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের নির্বাচন নিয়ে দাতা সদস্যের বিরুদ্ধে কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডে দায়েরকৃত অভিযোগের তদন্ত চলছে। মঙ্গলবার (১২ এপ্রিল) বেলা ১১ টার দিকে বিদ্যালয় গিয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত তদন্তকারী কর্মকর্তা ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ইমরান হোসেন সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলেন। এসময় পরিচালনা কমিটি গঠনে নির্বাচনের দাবিতে পোস্টার হাতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা।

সংশ্লিষ্টরা জানায়, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির নির্বাচনের লক্ষ্যে প্রার্থী হওয়ায় ৫ জনকে বিভিন্ন ধরণের হুমকি দেয় দাতা সদস্য ও উত্তর জয়পুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বহিস্কৃত সভাপতি ফিরোজ মাহমুদ বাকি। একপর্যায়ে তিনি জোরপূর্বক ওই সদস্যদের প্রার্থীতা প্রত্যাহার করতে বাধ্য করেন। এ ঘটনায় ফিরোজের বিরুদ্ধে ২০ মার্চ কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডে হাজিরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য এহতেশাম উদ্দিন মিঠু লিখিত অভিযোগ করেন। বোর্ড থেকে অভিযোগটি তদন্তের জন্য ইউএনও ইমরান হোসেনকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। সে লক্ষ্যে মঙ্গলবার বেলা ১১ টার দিকে বিদ্যালয় গিয়ে প্রায় ২ ঘন্টাব্যাপী শিক্ষক ও দাতা সদস্যসহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলেন ইউএনও।

এদিকে ইউএনওর তদন্তে যাওয়ার খবর পেয়ে সকাল থেকেই বিদ্যালয় মাঠে জড়ো হতে থাকে শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা। তাদের দাবি, জোরপূর্বক ৫ জন প্রার্থীকে প্রার্থীতা প্রত্যাহারে বাধ্য করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ নেতা বাকি এসব করিয়েছেন। সুষ্ঠু ভোটের আয়োজন করে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য ও সভাপতি নির্বাচন দেওয়ার দাবি জানান তারা।

বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য শহিদ উল্যা বলেন, ফিরোজের দাতা সদস্য পদ অবৈধ। তিনি ক্ষমতা দেখিয়ে গত ১০ বছর পরিচালনা কমিটির নির্বাচন হতে দেয়নি। ভাড়াটে লোকজন দিয়ে তিনি ৫ জন প্রার্থীর প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেছে। আমরা সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে একটি উৎসবমুখর নির্বাচন চায়।

আওয়ামী লীগ নেতা ফিরোজ মাহমুদ বাকি বলেন, আমি কাউকে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করতে বলিনি। নিজ ইচ্ছেতেই প্রার্থীরা আবেদন প্রত্যাহার করেছেন। মিঠু ও শহিদরা কুমিল্লাবোর্ডে অভিযোগ দিয়েছে। তারা হাইকোর্টেও রিট করেছে।

বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. শাহাব উদ্দিন, ফিরোজ ২ লাখ টাকা দিয়ে দাতা সদস্য হয়েছেন। জোরপূর্বক প্রার্থীতা প্রত্যাহার করার ব্যাপারে কেউ আমাদের কাছে অভিযোগ দেয়নি। প্রার্থীতা প্রত্যাহারের সময় আমি প্রার্থীদের ছবিও তুলে রেখেছি। তদন্তকারী কর্মকর্তার কাছেও আমি এ কথা বলেছি।

তদন্তকারী কর্মকর্তা ও ইউএনও ইমরান হোসেন বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে কুমিল্লা বোর্ড আমাকে তদন্তের জন্য দায়িত্ব দিয়েছে। অভিভাবকদের দাবির ব্যাপারে এখন আমি কিছুই বলতে পারছি না। সঠিকভাবে তদন্ত করে আমি বোর্ডে প্রতিবেদন জমা দেব।

প্রসঙ্গত, ফিরোজ উদ্দিন বাকির বিরুদ্ধে ১৫ মার্চ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ইমরান হোসেন ও উপজেলা মাধ্যমিক কর্মকর্তা নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু তালেবের কাছেও লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন জমিদাতা সদস্য শহিদ উদ্দিন।

এ জাতীয় আরও খবর




All rights reserved.  © 2022 Dailynobobarta
Theme Customized By Shakil IT Park
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com