লক্ষ্মীপুরে আওয়ামীলীগের সম্মেলনের বিপক্ষে বিক্ষোভ সমাবেশ

লক্ষ্মীপুরে আওয়ামীলীগের সম্মেলনের বিপক্ষে বিক্ষোভ সমাবেশ

লক্ষ্মীপুরে আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনকে ঘিরে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে দলীয় দু’পক্ষের নেতা-কর্মীদের মাঝে। আগামী ২৯ তারিখে অনুষ্ঠিতব্য চন্দ্রগঞ্জ থানাধীন হাজিরপাড়া ইউনিয়নের সম্মেলনকে ঘিরে এ উত্তেজনা দেখা দেয়।

রবিবার (২৭ মার্চ) বিকেলে ওই সম্মেলনকে তথাকথিত সম্মেলন উল্লেখ করে মনগড়া একক সিদ্ধান্ত ও গঠনতন্ত্র উপেক্ষা করার অভিযোগ তুলে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বিক্ষুব্ধ আওয়ামীলীগ নেতা-কর্মীরা। একই সঙ্গে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মিয়া গোলাম ফারুক পিংকুর বাড়িতে সম্মেলন আয়োজনের প্রতিবাদ ও তা বন্ধের দাবি জানান তারা। তবে জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি তা অস্বীকার করে ভিন্ন কথা বলছেন।

জানা যায়, আগামী ২৯ মার্চ সকাল ১০টায় হাজিরপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করে আওয়ামীলীগ। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকুর নিজ বাড়ির আঙ্গিনায় সম্মেলনের স্থান নির্ধারণ করে সর্বত্রে দাওয়াত কার্ড বিলি করা হচ্ছে। কিন্তুু বর্তমান দায়িত্বপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদককে না জানিয়ে সম্মেলনের তারিখ ও স্থান নির্ধারণ করা হয় বলে অভিযোগ উঠে। পাশাপাশি গঠনতন্ত্র উপেক্ষা করে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সম্মেলন শেষ না করে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলন আহবান করা হয়।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকু দলের গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন করে অবৈধভাবে সম্মেলনের মাধ্যমে নিজের পছন্দমত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের পকেট কমিটি করতে চান বলে নেতা-কর্মীরা অভিযোগ করেন। এতে করে কারো মনগড়া সিদ্ধান্ত মানতে নারাজ একাংশের নেতা-কর্মীরা। প্রতিবাদে তারা কেন্দ্রীয় নেতাদের হস্তক্ষেপ কামনা করে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করে বলে জানান। স্থানীয় হাজিরপাড়া বাজারে বিকেল ৪ টা থেকে বিভিন্ন পেষ্টুন হাতে মানববন্ধন শুরু হয়ে ৫টার দিকে শেষ হয়। পরে বিভিন্ন শ্লোগানে মুখরিত হয়ে বিক্ষোভ করেন তারা।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন উপস্থিত ছিলেন, হাজিরপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী আব্দুর রহিম, আওয়ামীলীগ নেতা আনোয়ার হোসেন ভূইয়া প্রমুখ।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মিয়া মো. গোলাম ফারুক পিংকু বলেন, আমি ইচ্ছা করলে সম্মেলন ছাড়াও কমিটি দিতে ও নিতে পারতাম, কিন্তু আমি তা করছিনা। যারা বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে তারা নৌকার পক্ষের নয় বলে জানান তিনি।