1. news.dailynobobarta@gmail.com : ডেইলি নববার্তা : ডেইলি নববার্তা
  2. subrata6630@gmail.com : Subrata Deb Nath : Subrata Deb Nath
মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ০৯:৩৮ পূর্বাহ্ন
মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ০৯:৩৮ পূর্বাহ্ন

রাজাপুরে ‘জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ’ উপলক্ষে অলোচনা সভা

মোঃ অহিদ সাইফুল, ঝালকাঠি প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৩১ মার্চ, ২০২২
  • ৫৭ বার পঠিত
রাজাপুরে 'জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ' উপলক্ষে অলোচনা সভা

Tags: , , ,

“ইলিশ আমাদের জাতীয় মাছ জাটকা ধরলে সর্বনাশ” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে এবছরে ঝালকাঠি রাজাপুর উপজেলায় জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ-২০২২ উদ্বোধন। এই জাটকা সংরক্ষনে উপজেলা প্রশাসন ও মৎস্য অধিদপ্তর সাতদিন ব্যাপী কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।আজ সকাল ৯.৩০ মিনিটে রাজাপুর উপজেলা প্রশাসন ও মৎস্য অধিদপ্তর এর আয়োজনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোকতার হোসেন এর সভাপতিত্বে বর্নাট্য র‌্যালী ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক মো.জহর আলী জাটকা সপ্তাহের শুভ উদ্বোধন ঘোষনা করেন।

বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মনিরুজ্জামান,জেলা মৎস্য কর্মকর্তা রিপন কান্তি ঘোষ,উপজেলা পরিষদ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফরোজা আক্তার লাইজু,সহকারী কমিশনার(ভূমি)অনুজা মন্ডল,সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো.মোজাম্মেল হক।

ইলিশের উৎপাদন বাড়াতে সরকারের পক্ষ থেকে নানামুখী উদ্যোগ নেয়া হয়ে থাকে। এর মধ্যে অভয়াশ্রম প্রতিষ্ঠা, প্রতিবছর ৮ মাস জাটকা ও প্রজনন মৌসুমে ইলিশ মাছ ধরা নিষিদ্ধ করা, জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ পালন, সমুদ্রে ৬৫ দিন মাছ ধরা নিষিদ্ধ করা, বিশেষ কম্বিং অপারেশনসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ রয়েছে। দেশে পদ্মা-মেঘনা অববাহিকায় ইলিশের মোট অভয়াশ্রম রয়েছে ছয়টি (পাঁচটিতে মার্চ-এপ্রিল মাছ ধরা বন্ধ, আন্ধারমানিক ব্যতীত), যার মোট আয়তন ৪৩২ কিলোমিটার। ইলিশের উৎপাদন বাড়াতে প্রতিবছর নভেম্বর থেকে জুন পর্যন্ত মোট ৮ মাস জাটকা ধরা নিষিদ্ধ থাকে।

এ সময় জাটকা ধরলে কমপক্ষে ১ বছর থেকে ২ বছরের সশ্রম কারাদন্ড অথবা ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা অথবা উভয় দন্ডে দন্ডিত করার বিধান রয়েছে। চন্দ্রমাসের ভিত্তিতে প্রধান প্রজনন মৌসুম ধরে প্রতিবছর আশ্বিন মাসের প্রথম চাঁদের পূর্ণিমার ৪ দিন আগে থেকে পূর্ণিমার দিনসহ পরের ১৭ দিন মিলিয়ে মোট ২২ দিন ইলিশ ধরা, মজুদ, পরিবহন, সংরক্ষণ ও বিক্রি নিষিদ্ধ থাকে। জাটকা যেন ইলিশ ধরার জালে আটক না যায়, তাই সরকার ইলিশ ধরার ফাঁস জালের সাইজ ৬ দশমিক ৫ সে.মি নির্ধারণ করেছে। ইলিশ রক্ষায় প্রতি বছর সাধারণত মার্চ বা এপ্রিল মাসে জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ পালন করে সরকার।

মৎস্য সম্পদ ধ্বংসকারী কারেন্ট জাল, বেহুন্দি ও অন্যান্য অবৈধ জাল নির্মূলে প্রতিবছর বিশেষ কম্বিং অপারেশন পরিচালিত হয় মৎস্য অধিদপ্তরসহ সরকারের বিভিন্ন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থা থেকে। তাছাড়া জাটকা ও মা ইলিশ রক্ষায় জনগণের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় সচেতনতামূলক টিভিসি, জিঙ্গেল, স্ক্রল , বিজ্ঞাপন প্রচারের পাশাপাশি লিফলেট, পোস্টার, ব্যানার, ফোল্ডার, পুস্তিকা বিনামূল্যে প্রচার করে যাচ্ছে মন্ত্রণালয়ের প্রচার সেল নামে পরিচিত মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ তথ্য দপ্তর।

দেশের প্রায় ২০-২৫ লাখ মানুষ ইলিশ আহরণে নিয়োজিত । ইলিশ সম্পদ ব্যবস্থাপনা উন্নয়নে বর্তমান সরকারের নানা ধরনের সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি চালু রয়েছে। এসব কর্মসূচির আওতায় ২০১৯-২০ অর্থবছরে জাটকাসমৃদ্ধ ২০ জেলার ৯৬টি উপজেলায় জাটকা আহরণে বিরত ৩ লাখ ১ হাজার ২৮৮ টি জেলে পরিবারকে মাসিক ৪০ কেজি হারে ৪ মাসের জন্য মোট ৪৬ হাজার ৭৮৮ দশমিক ০৮ মেট্রিক টন চাল প্রদান করা হয়েছে। গত ৮ বছরে জাটকা আহরণে বিরত ২০ লক্ষ ৯৫ হাজার ৬৮৫টি জেলে পরিবারকে ৪০ কেজি হারে ৪ মাস ভিজিএফ(চাল) বিতরণ করা হয়েছে। জাটকা আহরণ নিষিদ্ধকালীন সময় ছাড়াও গত ৫ অর্থ-বছরে মা ইলিশ আহরণ নিষিদ্ধকালীন ২২ দিনের জন্য পরিবার প্রতি ২০ কেজি হারে মোট ২৬ লাখ ২৯ হাজার ৫০৯ টি জেলে পরিবারকে ভিজিএফ খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

এছাড়াও এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলার বিভিন্ন দফতর প্রধানগন, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শাহআলম নান্নু,সাবেক অধ্যক্ষ শাহজাহান মোল্লাসহ কয়েকশত মৎস্যজীবীরা।অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন উপজেলা মেরিন ফিশারিজ কর্মকর্তা মো.মাহমুদুল হাসান।

এ জাতীয় আরও খবর




All rights reserved.  © 2022 Dailynobobarta
Theme Customized By Shakil IT Park