রাজশাহীতে অবরোধ তুলে নিল শ্রমিকেরা

রাজশাহীতে অবরোধ তুলে নিল শ্রমিকেরা

রাজশাহীর কাটাখালিতে হানিফ পরিবহনের সাথে মাইক্রোবাসের সাথে সংঘর্ষে ১৭ জন নিহতের ঘটনায় বাস চালক আব্দুর রহিমের জামিন না পাওয়ায় রাজশাহী থেকে সব রুটের বাস চলাচল বন্ধ করে দেন বাস শ্রমিকরা।

গতকাল মঙ্গলবার (২৯ মার্চ) বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে রাজশাহী শিরোইলন বাস টার্মিনালে মহসড়কের উপর এলোমেলো ভাবে বড়-ছোট বাস রেখে এই কর্মসূচি পালন করতে থাকেন শ্রমিকরা। এর আগে বৃহস্পতিবার (২৪ মার্চ) রাজশাহী এবং রংপুর বিভাগে অনির্দিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেয় সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের রাজশাহী ও রংপুর বিভাগীয় আঞ্চলিক কমিটির নেতারা।

রোববার (২৭ মার্চ) থেকে এ ধর্মঘট হওয়ার কথা থাকলেও ধর্মঘটের ঘোষণা দেওয়ার একদিন পরেই শুক্রবার (২৫ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৫টায় হঠাৎ বাস টার্মিনাল এলাকায় জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে ধর্মঘট স্থগিতের ঘোষণা দেন সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন রাজশাহী বিভাগীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মাহতাব হোসেন চৌধুরী। কিন্তু ধর্মঘট স্থগিতের ঘোষণা না মেনে গতকাল মঙ্গলবার (২৯ মার্চ) বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে রাজশাহী শিরোইলন বাস টার্মিনালে মহসড়কের উপর এলোমেলো ভাবে ঢাকার কোচসহ বড়-ছোট বাস রেখে এই কর্মসূচি পালন করতে থাকে পরিবহন শ্রমিকরা। প্রায় ঘন্টা ব্যাপি অবরোধ শেষে শ্রমিকরা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য ও রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের আশসে অবরোধ তুলে নেন তারা।

উল্লেখ,গত বছরের ২৬ মার্চ রাজশাহীর কাটাখালীতে হানিফ পরিবহনের যাত্রীবাহী বাস এবং মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১৭ জন নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার বাস চালকের জামিন না হওয়ায় এ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছিল। তবে ধর্মঘট স্থগিতের পরে হঠাৎ করে বাস চলাচল বন্ধ করে দেওয়ায় বিপাকে পড়েছেন রাজশাহী থেকে বিভিন্ন রুটে গমনকারী সাধারণ লোকজন।