বিএনপির সাবেক মহাসচিব খোন্দকার দেলোয়ার’র ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

খোন্দকার দেলোয়ার'র ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

বিএনপির সাবেক মহাসচিব, ভাষাসৈনিক ও বরেণ্য রাজনীতিবিদ অ্যাডভোকেট খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত। ২০১১ সালের ১৬ মার্চ ৭৮ বছর বয়সে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

প্রয়াত এ নেতার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে (বুধবার) বাদ জোহর গ্রামের বাড়ি মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার পাঁচুরিয়ায় খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের কবর জিয়ারত শেষে দোয়া মাহফিলে অংশ নেন বিএনপির মহাসচিবসহ কেন্দ্রীয় নেতারা।

প্রয়াত মহাসচিবের ছেলে ও জেলা বিএনপির সহ সভাপতি ড. খোন্দকার আকবর হোসেন বাবলু জানান, সকাল থেকেই তার কবরস্থানে কোরআনে খতম ও পরে দোয়া মিলাদ অনুষ্ঠিত হয়েছে। তার কবরে শ্রদ্ধা জানানোসহ নানা কর্মসূচির মাধ্যমে তাকে স্মরণ করেছে বিএনপি।

মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বাংলাদেশে মরহুম খোন্দকার দেলোয়ার হোসেন একজন দৃঢ়চেতা, আদর্শনিষ্ঠ রাজনীতিবিদ হিসেবে দেশের মানুষের মনে শ্রদ্ধার আসনে অধিষ্ঠিত থাকবেন। দৃঢ়তা, অটুট মনোবল এবং ব্যক্তিত্বে তিনি ছিলেন অনন্য উচ্চতায় একজন ব্যতিক্রমী রাজনীতিবিদ। ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে স্বাধিকার, স্বাধীনতা, গণতন্ত্র ও জনগণের মুক্তির সব সংগ্রামে তিনি অসামান্য অবদান রেখেছেন।

মরহুম দেলোয়ার হোসেন মানিকগঞ্জ জেলার ঘিওর উপজেলার খিরাই পাচুরিয়া গ্রামে ১৯৩৩ সালের ১ ফেব্রুয়ারি জন্ম গ্রহন করেন। তাঁর পিতা খোন্দকার আবদুল হামিদ ছিলেন একজন আলেম এবং তাঁর মাতা ছিলেন আকতারা খাতুন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৫২ সালে অনার্স ও ১৯৫৩ সালে মাস্টার্স পাস করেন। ১৯৫৫ সালে একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এলএলবি ডিগ্রি অর্জন করেন। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি চার ছেলে ও দুই মেয়ের বাবা ছিলেন।