1. news.dailynobobarta@gmail.com : ডেইলি নববার্তা : ডেইলি নববার্তা
  2. subrata6630@gmail.com : Subrata Deb Nath : Subrata Deb Nath
বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ০১:২৯ পূর্বাহ্ন
বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ০১:২৯ পূর্বাহ্ন

বরিশালে কমিউনিটি পুলিশিং সভা অনুষ্ঠিত

তুহিন হোসেন, বরিশাল ব্যুরো প্রধান
  • আপডেট সময় : রবিবার, ১৫ মে, ২০২২
  • ৩২ বার পঠিত
বরিশালে কমিউনিটি পুলিশিং সভা অনুষ্ঠিত

Tags: ,

পানি প্রতিমন্ত্রী কর্ণেল অব. জাহিদ ফারুক বলেছেন, দলমত নির্বিশেষে এলাকায় সৎ হিসেবে পরিচিত তরুণ যুবা ও বয়স্কদের সমন্বয়ে কমিউনিটি পুলিশিং কমিটি হলে আমি মনে করি এর সুফল আরো গভীর হবে। তিনি আরো বলেন, সত্যিকারের শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব তখনই সফল হবে যখন সাধারণ মানুষ নিশ্চিত হয়ে পুলিশের উপর নির্ভর করবে। আর এ জন্য একটি সৎ ও আদর্শ কমিউনিটি পুলিশের কমিটির ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

পানি প্রতিমন্ত্রী বলেন, এটি যদিও বিদেশী চিন্তা চেতনা। ১৮২৯ সালে আধুনিক পুলিশি ব্যবস্থার জনক ও ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী স্যার রবার্ট পিল গণমুখী পুলিশ বিষয়ে বলতে গিয়ে পুলিশই জনগণ, জনগণই পুলিশ ধারণাটি নিয়ে আসেন। যার উপর ভিত্তি করে আজকের কমিউনিটি পুলিশিং ধারণা প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ও ২০১৭ সাল থেকে বাংলাদেশে এটি কার্যকর করা হয়।

‘পুলিশই জনতা, জনতাই পুলিশ’ কমিউনিটি পুলিশের এই স্থায়ী শ্লোগানের সাথে নতুন যুক্ত -মুজিব বর্ষে পুলিশ নীতি, জনসেবা আর সম্প্রীতি – এই শ্লোগানকে প্রতিপাদ্য করে নগরীর শিল্পকলা একাডেমির মিলনায়তনে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পানি প্রতিমন্ত্রী কর্ণেল অবঃ জাহিদ ফারুক শামীম এসব কথা বলেন।

বরিশাল সিটি করপোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, বাংলাদেশ কখনোই শ্রীলঙ্কা হবে না। যে সব নিন্দুকেরা এই দিবা স্বপ্ন দেখছেন তাদের উদ্দেশ্যে বলছি শুনুন। বাংলাদেশের বৈদেশিক আয় নিজস্ব উপার্জন। আমাদের রেমিট্যান্স ২৮ পার্সেন্ট আর শ্রীলঙ্কার রেমিট্যান্স মাত্র ২ পার্সেন্ট। তাদের উপার্জন পুরোটাই পর্যটন নির্ভর। তাদের সাথে আমাদের কখনোই কোনো মিল নেই। উল্টো মানবিক বিবেচনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবার শ্রীলঙ্কাকে আর্থিক সাহায্য করেছেন তা আপনারা জানেন।

এ সময় পানি প্রতিমন্ত্রী জানান, আগামী দুই মাসের মধ্যে বরিশাল তথা দক্ষিণাঞ্চলে ১৬টি প্রকল্প বাস্তবায়ন হবে ইনশাআল্লাহ। অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন বিদায়ী পুলিশ কমিশনার ও অতিরিক্ত আইজিপি শাহাবুদ্দিন খান। এতে সভাপতির বক্তব্যে মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ বলেন, আমি মনে করি না আমার কাজে কোনো ভুল আছে। যদি ভুল থাকতো তাহলে প্রধানমন্ত্রী বা আমার বাবা আমাকে ডেকে কিছু বলতেন। তারা যেহেতু কিছুই বলেননি, তার মানে আমি সঠিক। আমি বরিশাল নগরীর উন্নয়নে যেসব ভূমিকা রেখেছি ও রাখবো তা সঠিক হবে বলেই আমি মনে করি। মেয়র আরো বলেন, সামনে আবার আপনারা আমাকে ভোট দেবেন কি দেবেন না সেটা আপনাদের বিষয়। আমি আপনাদের কাছে ভোট চাইতে যাব না।

বরিশাল সিটি করপোরেশনের মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ বলেন, আমি এসি গাড়িতে ঘুরে ঘুরে জনগনের সাথে দেখা করি না। আমি রাস্তায় হেটে হেটে জনগনের সেবা করি। এই শহরের অলিগলির জনগণ, ভিখারী, পাগলের কাছে জিজ্ঞেস করেন। দেখেন তারা কার কথা বলেন।

সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ বলেন, নগরবাসী আপনারা অহংকার করে কথা বলতে পারেন। সিটির সড়ক উন্নয়ন পাঁচ বছরের গ্যারান্টি দিয়ে করা হচ্ছে। দেশের কোথাও এমন উদাহরণ নেই। বিসিএস পরীক্ষায় বরিশাল সিটি করপোরেশনকে সৃজনশীল সিটি হিসেবে প্রশ্ন আসে। এই শহরে মজিবর রহমান সরোয়ারের (বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব) মত লোকও রাজনীতি করেছে। সকাল-বিকেল হাতপা ফেলে দিয়েছেন।

ছাত্রলীগের নামধারীরা শিক্ষকদের ধাওয়া করে কিভাবে লাঞ্ছিত করেছেন তা জনগন ভোলেনি। এইসব পরিস্থিতির পরিবর্তন এনেছি, তাতো আপনাদের স্বীকার করতে হবে। তিনি বলেন, কারো প্রতি আমার অভিযোগ নেই। কারন আমি সঠিক পথে আছি। সাদিক আব্দুল্লাহ মুখ দিয়ে যা বলে সেটি কাজে করে। আমার জীবন-যৌবন এই শহরের মানুষের জন্য বিলিন করে দিয়ে দিয়েছি।

আমার গালে চড় দিবেন, আমি আমার দাদা আব্দুর রব সেরনিয়াবাতের মত আমার আরেক গাল পেতে দিব চড় খাওয়ার জন্য। মনে রাখবেন, চড় খেয়েও জয়ী হওয়া যায় তার প্রমান ১৮ আগস্টের ঘটনা। সাদিক আব্দুল্লাহ বলেন, পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী ও আমার মধ্যে বিরোধ বলে অনেকেই রাজনৈতিক ফায়দা নিতে চান। তিনি বলেন, পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী আমার গুরুজন। তার সাথে আমার কোন বিরোধ নেই। তার বিরুদ্ধে আমি আজ পর্যন্ত কোন কথা বলিনি।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মো: আনোয়ার হোসেন, ডিআইজি এস এম আক্তারুজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (অ্যাডমিনিস্ট্রেশন এন্ড ফিন্যান্স) প্রলয় চিসিম, জেলা প্রশাসক এর পক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শহীদুল ইসলাম, উপজেলা চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টু, বীর মুক্তিযোদ্ধা মহিউদ্দিন মানিক বীর বিক্রম, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম জাহাঙ্গীর, অধ্যাপক ইমামুল হক, প্রেসক্লাবে সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসেনসহ আরো অনেকে বক্তব্য রাখেন। সভায় কমিউনিটি পুলিশের কার্যক্রমকে আরো গতিশীল করার আহ্বান জানিয়ে প্রধান বক্তা পুলিশ কমিশনার শাহাবুদ্দিন খান দলমত নির্বিশেষে বরিশালবাসী প্রতিটি নাগরিকের সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি চলে যাওয়ার বেদনা নিয়ে বরিশালের মানুষের কাছে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালনের জন্য দোয়া কামনা করেন।

এ জাতীয় আরও খবর




All rights reserved.  © 2022 Dailynobobarta
Theme Customized By Shakil IT Park
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com