টাঙ্গাইলে জমির বিরোধে মারপিট, প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

টাঙ্গাইলে প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে জমি দখলের চেষ্টার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেল করেছে সদর উপজেলার বাঘিল ইউনিয়নের গোপালপুর (শিবপুর) গ্রামের মৃত কামাল উদ্দিনের ছেলে মো. সোলাইমান মিয়া (৬০)। রোববার (৮ মে) সকালে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের বঙ্গবন্ধু অডিটিরিয়ামে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য তিনি বলেন, ১৯৯০ সাল থেকে পৈত্রিক ও ক্রয়সুত্রে ৫১শতাংশ ভুমিতে খাজনা পরিশোধ করে নিজ নামে খারিজ করিয়া ভোগদখল ও বসবাস করে আসছি। যার বিএস খতিয়ান নং ৪৯৭,আর এস ৫৯৫।

গত ২৬ এপ্রিল মঙ্গলবার দুপুরে প্রতিবেশী মৃত গোলাম মাহমুদের ছেলে মো. কোরবান আলী, আব্দুল গফুর, হাবিবুর রহমান, হাবিবুর রহমানের ছেলে আব্দুর রউফ ওরফে মাওলানা, শফিকুল ইসলাম, মোহাম্মদ আলী দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হইয়া জমি দখলের জন্য অতর্কিতভাবে হামলা করে।

এ সময় ভুক্তভোগী সোলায়মান তার জমি রক্ষায় বাঁধা দিলে আব্দুর রউফ তার হাতে থাকা লাঠি দিয়া বাড়ি মারিয়া সোলাইমানের ডান হাতের কবজি ভেঙ্গে ফেলে। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। তিনি আরো বলেন, তাদের হুমকিতে আমি এবং আমার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি যে কোন সময় তাদের দ্ধারা প্রাণনাশের ঘটনা ঘটতে পারে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল গফুরের সাথে মুঠোফোনে বলেন, ৩৭ শতাংশ ভুমি আমার পৈত্রিক সম্পত্তি। যার সিএস, আরএস আমাদের নামে। সোলায়মান মিয়া ভুল নকশা তৈরী করে গোপনে খারিজ করেছিলো পরে আমরা টাঙ্গাইল ট্রাইবুনাল আদালতে মামলা করলে খারিজ ভেঙ্গে যায়। পরবর্তীতে সোলায়মান উচ্চ আদালতে আপীল করেন। মারপিটের ঘটনা সত্য নয় বলে জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে, মো. সোলায়মানের ছেলে রাসেদুল ইসলাম, আবু মিয়া ও ছোট ভাই আব্দুর রহিম উপস্থিত ছিলেন।