টস জিতে বোলিংয়ে বাংলাদেশ

টস জিতে বোলিংয়ে বাংলাদেশ

সাইডস্ক্রিন জটিলতার কারণে নির্ধারিত সময়ের আধাঘণ্টা পর অবশেষে শুরু হয়েছে বাংলাদেশ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যকার প্রথম টেস্টের প্রথম দিনের খেলা। টস জিতে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ। টস জিতে মাঠে নেমে পড়েছিলেন দুই দলের খেলোয়াড়রা। বল হাতে তুলে নিয়েছিলেন তাসকিন আহমেদও। ব্যাটে ঠুকঠাক করছিলেন ডিন এলগাররাও। কিন্তু তারপরই সাইডস্ক্রিনের সমস্যার কারণে আম্পায়ার খেলা বন্ধ রাখতে বাধ্য হন।

ডারবানে ম্যাচটি শুরু হওয়ার কথা ছিল দুপুর ২টায়। শেষমেশ বল মাঠে গড়ায় ২টা ৩৩ মিনিটে। অনাকাঙ্ক্ষিত এ বিরতির কারণে লাঞ্চবিরতিও আধাঘণ্টা পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। ম্যাচ শুরুর আগের দিন বড় প্রতিপক্ষ ভাবা হচ্ছিল ডারবানের আবহাওয়াকে। বৃষ্টির পূর্বাভাসও ছিল। কিন্তু বৃষ্টি ঝড়ার আগেই সাইডস্ক্রিন জটিলতায় বন্ধ রাখতে হয় খেলা। এ মাঠে সবশেষ খেলা হয়েছিল আরও তিন বছর আগে। তাই হয়তো সিস্টেমে জটিলতা রয়ে গেছে ধারণা করা হচ্ছে।

দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ওয়ানডে সিরিজটা স্বপ্নের মতো কেটেছে বাংলাদেশ দলের। সাকিব-তাসকিনদের দুর্দান্ত পারফরমেন্সে ঐতিহাসিক সিরিজ জিতে নেয় টাইগাররা। এবার মিশন টেস্ট সিরিজ। সাদা পোশাকেও রঙিন স্বপ্ন মুমিনুলদের। যদিও দেশসেরা ব্যাটার তামিম ইকবাল এবং পেস ইউনিটে অন্যতম ভরসা শরিফুলকে পাচ্ছে না বাংলাদেশ। দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে আজ বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশের।

পেটে সমস্যার কারণে প্রথম টেস্ট থেকে ছিটকে গেছেন তামিম। তার জায়গায় খেলছেন সাদমান ইসলাম। এছাড়া টাইগার পেসার শরিফুলের খেলা নিয়েও আগে থেকেই শঙ্কা ছিল। শেষমেশ চোটের কাছে হার মানলেন তিনিও। তার জায়গায় সুযোগ পেয়েছেন খালেদ আহমেদ।

ওয়ানডের পর টেস্টেও ইতিহাস গড়ার দারুণ সুযোগ বাংলাদেশের সামনে। এক্ষেত্রে মুমিনুলদের সামনে বড় অনুপ্রেরণা নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ঐতিহাসিক টেস্ট জয়। ডারবানে খেলতে নামার আগে তাই বারবার আসছে নিউজিল্যান্ডের মাউন্ড মঙ্গানুইয়ের ইতিহাসগড়া টেস্ট জয়ের প্রসঙ্গ।

এ ছাড়া আরও বেশ কয়েকটি কারণে ওয়ানডের পর টেস্টেও ভালো করার সুযোগ রয়েছে বাংলাদেশের সামনে। তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে, আইপিএলের কারণে বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে তুলনামূলক দুর্বল দল নিয়ে খেলতে নামছে দক্ষিণ আফ্রিকা। কাগিসো রাবাদা, লুঙ্গি এনগিদি কিংবা মার্কো ইয়ানসেনের মতো টেস্ট দলের নিয়মিত তারকারা এখন আইপিএল খেলতে ভারতে আছেন। শুধু বোলাররাই নন, এইডেন মার্কারাম কিংবা রাসি ফন ডার ডুসেনের মতো তারকা ব্যাটসম্যানদেরও পাচ্ছে না স্বাগতিকরা। তাই এটাকে বড় সুযোগ হিসেবে দেখা হচ্ছে।

যদিও বাংলাদেশের অন্যতম সেরা দুই ক্রিকেটার ছিটকে পড়ায় কিছুটা শঙ্কা তো থাকছেই। এদিকে, ডারবান টেস্টের শুরু থেকে শেষ, সম্ভবত প্রতিদিনই আলোচনায় থাকবে বৃষ্টি। অন্তত দক্ষিণ আফ্রিকার আবহাওয়া অধিদফতর থেকে প্রকাশিত রিপোর্ট বলছে সে রকমই। ক্যাপ্টেন মুমিনুলের ভাবনার অনেকটা জুড়েই তাই উইকেটের আচরণের চেয়েও প্রাধান্য পাচ্ছে বিরূপ আবহাওয়া।