জয়পুরহাটে প্রধান শিক্ষক অপসারণে কুচক্রী মহলের ষড়যন্ত্র অব্যাহত

কাশিয়াবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়

জয়পুরহাট জেলা শহরের কাশিয়াবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে অপসারণ ও বিদ্যালয়টির চলমান উন্নয়ন কাজ বাধাগ্রস্ত করতে একটি কুচক্রী মহল বিভিন্ন ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে।

এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির অভ্যন্তরিন কোন্দলের জেরে বিভ্রান্তি, গুজব ও সহিংসতা সৃষ্টির লক্ষে কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীদের উষ্কিয়ে দিয়ে বিপদগামী শিক্ষক, কর্মচারী ও প্রতিষ্ঠান বিরোধীরা প্রধান শিক্ষক মোঃ গোলাম মোস্তফাকে অপসারনের ষড়যন্ত্র করে স্কুলের লক্ষ্য অর্জনে সরকারের প্রয়াস ভন্ডুল করে দেওয়ার চক্রান্ত করা হচ্ছে।

বিদ্যালয়টির চলমান উন্নয়নের কাজ অব্যাহত রাখতে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জনপ্রতিনিধিগণ সার্বিক সহযোগিতা এবং দেখভাল করায় ঈর্ষান্নীত হয়ে প্রধান শিক্ষকের আদেশ পালনে নিয়োজিত থাকা নিরাপত্ত্বা প্রহরী মোঃ জাকির হোসেনের বিরুদ্ধে গত ১০ এপ্রিল গোপন পেন ক্যামেরা নিয়ে ভিডিও ধারনের মিথ্যা ও বানোয়াট অভিযোগ তুলে কুচক্রী মহলটি। তারা শিক্ষার্থীদের প্রভাভিত করে প্রধান শিক্ষক ও নিরাপত্ত্বা প্রহরীকে অবরুদ্ধ করে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করলে খবর পেয়ে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

কুচক্রী মহল ও আগুন সন্ত্রাসীরা সরকারের উন্নয়ন মূলক কাজ বাধাগ্রস্ত করার লক্ষ্যে কিছু গণমাধ্যম কর্মীকে প্রভাবিত করে মিথ্যা ও ভুয়া তথ্য দিয়ে সংবাদও প্রকাশ করিয়েছে।

নিরাপত্ত্বা প্রহরী জাকির হোসেন জানান, তার কাছে পেন ক্যামেরা ডিভাইস ছিলো কিন্তু সেটি দিয়ে কোন ভিডিও সে করেনি। জয়পুরহাট থানা পুলিশ কতৃক পরীক্ষা- নিরিক্ষার পর সে নির্দোষ প্রমানিত হয়। গোপন পেন ক্যামেরা দিয়ে স্কুল ছাত্রী ও শিক্ষিকাদের ভিডিও ধারনের যে, অভিযোগ তুলছে তা মিথ্যা ভিত্তিহীন, এতে প্রতিষ্ঠানের ব্যপক মানহানি ও সুনাম ক্ষুন্ন হয়েছে।

তাদের ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে নিয়োগ বানিজ্য শিরোনামে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদও প্রকাশ করা হয়েছিল। যাহা সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত।

কাশিয়াবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ গোলাম মোস্তফা বলেন, অভ্যন্তরিন কোন্দলকে পুঁজি করে একটি স্বার্থন্নেশী মহল বিভিন্ন মিথ্যা তথ্য ও গুজব ছড়িয়ে সহিংসতা সৃষ্টি করে বিদ্যালয়ের চলমান উন্নয়নের কাজ বাধাগ্রস্ত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। বিদ্যালয় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও প্রশাসনের যথাযথ হস্তক্ষেপ কামনা করে এহেন কার্যকলাপের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।