আজ সোমবার, আগস্ট ১৫, ২০২২ | সময় : ১০:৫৩ পূর্বাহ্ণ
হোমক্যাটাগরিধর্মআত্মহত্যা নিয়ে কোন ধর্মে কী বলে

আত্মহত্যা নিয়ে কোন ধর্মে কী বলে

- Advertisement -

আত্মহত্যা বা নিজেকে নিজে হত্যা করা বর্তমান সমাজের জন্য একটি বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রায় প্রত্যেক দিনই কোনো কোনো দৈনিক পত্রিকাতে আমরা আত্মহত্যার খবর পাই। বিভিন্ন কারণে এসব আত্মহত্যা করা হয় বলেও আমরা জানতে পারি। কিন্তু এ থেকে পরিত্রাণের কোনো উপায় খুঁজে পাচ্ছি না।

এ প্রসঙ্গে মুফতি ফয়জুল্লাহ আমান বলেন, আত্মহত্যা কবিরাহ গুনাহ। আল্লাহতায়ালা বলেছেন, তোমরা নিজেদের হত্যা করো না। শুধু আত্মহত্যা না, নিজের ক্ষতি হয় এমন সব কাজ করা থেকেও বিরত থাকতে বলা হয়েছে। যদি কেউ নিজেকে হত্যা করে তাহলে আখিরাতেও চিরকাল সে একইভাবে নিজেকে হত্যা করতে থাকবে।

- Advertisement -

শুধু ইসলাম ধর্মই নয়, খ্রিস্ট ধর্ম বা সনাতনী ধর্মেও আত্মহত্যাকে মহাপাপ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। ধর্মগুরুরা বলছেন, জীবন দান করেছেন ঈশ্বর। আবার সেই জীবন কেড়ে নেওয়ার অধিকারও একমাত্র তার। মানুষের কোনো অধিকার নেই আত্মহননের।

কাকরাইল চার্চের ফাদার গাব্রিয়েল কোড়াইয়া বলেন, ঈশ্বর আমাকে পাঠিয়েছে। আমার জীবনের মালিকও হলেন তিনি। আমার জীবন নেওয়ার অধিকার শুধু ঈশ্বরেরই আছে। খ্রিষ্ট ধর্মে আত্মহত্যা মানেই মহাপাপ। এই পাপের জীবনে কখনো পা বাড়ান যাবে না।

এদিকে রমনা কালী মন্দিরের প্রধান পুরোহিত হরিচাদ চক্রবর্তী বলেন, সনাতন ধর্মের রীতিতে আত্মহত্যা মানেই মহাপাপ। আমাদের জীবনের মালিক শুধুই ভগবান ঈশ্বর। কোনোভাবেই নিজের জীবন নিজে হত্যা করা যাবে না। আত্মহত্যাকারীর পরিত্রাণ পাওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

- Advertisement -

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার রিপোর্ট অনুযায়ী, বিশ্বে প্রতি বছর আত্মহত্যা করেন প্রায় ১০ লাখ মানুষ। সারা বিশ্বে যেসব কারণে মানুষের মৃত্যু ঘটে তার মধ্যে আত্মহত্যা হলো ত্রয়োদশতম প্রধান কারণ। কেন দিন দিন আত্মহত্যার প্রবণতা বাড়ছে আর কীভাবেই বা এ থেকে তরুণ সমাজকে রক্ষা করা যায় সে প্রশ্ন ছিল সমাজবিজ্ঞানী ড. জিয়া রহমানের কাছে।

তিনি বলেন, কোনো কারণে পড়াশুনায় খারাপ করা, চাকরি চলে যাওয়া, মানসিক চাপ, প্রেমে বিফলতা নানা কারণেই অনেকে আত্মহত্যা করছেন। বিশেষ করে মহামারি করোনা শুরু হওয়ার পর এটা আরো বেড়ে গেছে। এটা থেকে বাঁচতে হলে পারিবারিক বন্ধন একটা বড় ইস্যু। একা থাকা যাবে না। কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকতে হবে।

সব ধর্মেই বলা হচ্ছে আত্মহত্যা মহাপাপ। একাকীত্ব বা যেকোনো মানসিক সমস্যা থেকে বাঁচতে আত্মহননের পথ বেছে নেওয়া কখনই সঠিক সিদ্ধান্ত নয়।বিশেষজ্ঞরাই বলছেন, যে কোনো পরিস্থিতিতেই জীবনকে উপভোগ করা শিখতে হবে। প্রয়োজনে ভ্রমণে বের হোন, নয়তো মন খুলে কথা বলুন বন্ধুদের সাথে।

- Advertisement -
আরও পড়ুন
- Advertisment -

আলোচিত সংবাদ